মাদক মামলায় গ্রেপ্তার বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানপুত্র আরিয়ান খানের জামিন আবেদন খারিজ করেছেন মুম্বাই সেশন কোর্ট।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবর, উঠতি এক বলিউড অভিনেত্রীর সঙ্গে আরিয়ান খান মাদক নিয়ে আলোচনা করেছেন; আজ আদালতে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি) এমন একটি প্রমাণ জামা দিয়েছে।

এর আগে ১৩ অক্টোবর দুই পক্ষের শুনানি শেষে  ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) বিশেষ আদালত আজ রায়ের দিন ধার্য করেছিলেন।

ইন্ডিয়া টিভির খবর, আরিয়ান খানের আইনজীবী এখন জামিন আবেদনের জন্য মুম্বাইয়ের হাইকোর্টে আপিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

২৩ বছর বয়সী আরিয়ান খানের জামিনের পক্ষে শুনানি করছেন মুম্বাইয়ের অন্যতম শীর্ষ আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অমিত দেশাই। আদালতে আরিয়ানের আইনজীবী অমিত দেশাই বলেন, ‘আরিয়ান খান অনেক ভুগেছেন এবং অনেক শিক্ষা পেয়েছেন। তিনি মাদকবিক্রেতা কিংবা মাদকচক্রের সঙ্গে জড়িত নন।’

আরিয়ান খানের জামিনের বিরোধিতা করে দীর্ঘ বক্তব্যের এক পর্যায়ে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) প্রতিনিধি এএসজি অনিল সি সিং আদালতকে বলেন, ‘যদিও আরিয়ানের কাছ থেকে কিছুই উদ্ধার করা হয়নি, কিন্তু তিনি যেহেতু মাদকবিক্রেতার (অচিত কুমার) সংস্পর্শে ছিলেন, তাই তাঁকে জামিন দেওয়া ঠিক হবে না।’

মাদককাণ্ডে গ্রেপ্তার বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান ষষ্ঠবারের মতো জামিন আবেদন করেন।

মাদককাণ্ডে দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জেরার পর ৩ অক্টোবর বিকেলে আরিয়ান খানকে গ্রেপ্তার দেখায় এনসিবি। আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি এনডিপিএসের ৮সি, ২০বি, ২৭, ২৯ ও ৩৫ ধারায় মামলা করা হয়েছে। ২৩ বছর বয়সী আরিয়ান খানের পক্ষে আইনি লড়াই চালাচ্ছেন মুম্বাইয়ের অন্যতম শীর্ষ আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অমিত দেশাই।

মুম্বাইয়ের উপকূলে একটি প্রমোদতরীতে চলমান মাদক পার্টি থেকে ২ অক্টোবর রাতে আরিয়ান খানসহ মোট আট জনকে আটক করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। যাত্রীর ছদ্মবেশে কর্ডেলিয়া নামে বিলাসবহুল ওই প্রমোদতরীতে চেপে বসেছিলেন এনসিবির গোয়েন্দারা।